বিষ্ণু পুরাণ – পৃথ্বীরাজ সেন

বিষ্ণু পুরাণঃ মহর্ষি বশিষ্ঠের পুত্র শক্তি। শক্তির পুত্র মহামুনি পরাশর। তিনি ধর্মশাস্ত্রে মহাপণ্ডিত। মহামুনি মৈত্রেয় তারই শিষ্য। তার মনে জাগে নানা প্রশ্ন, যেমন–এই চরাচর জগৎ কেমন করে সৃষ্টি আর লয় হয়।

বিষ্ণু পুরাণ - পৃথ্বীরাজ সেন

সমুদ্র-পর্বতের স্থিতি, আকাশের পরিমাণ, সূর্যের অবস্থান, দেবতার বংশ বিস্তার, চতুর্যগের বিবরণ, দেবর্ষির চরিত, ব্যাসদেব দ্বারা বেদের শাখা বিভাগ ইত্যাদি।

সেই সব প্রশ্নের উত্তরে মহামুনি পরাশর বললেন– ভগবান বিষ্ণুর প্রতি শ্রদ্ধা-ভক্তি করলে, কখনও কোন বিপদে পড়তে হবে না।

বিষ্ণু পুরাণ - পৃথ্বীরাজ সেন

যদিও বা বিপদ হয় তিনি উদ্ধার করে দেন। ভূল করে পাপ কাজ করলেও তিনি ক্ষমা করে দেন। হরিস্মরণকারীকে যমালয়ে যেতে হয় না। শ্রীবিষ্ণুর মহিমাই এই পুরাণের মূল বিষয়, তাই এর নামকরণ করা হয়েছে বিষ্ণুর পুরাণ।

 

বিষ্ণু পুরাণ – পৃথ্বীরাজ সেন

বিষ্ণু পুরাণ - পৃথ্বীরাজ সেন

০১. ঋভু ও নিদাঘের কাহিনি
০২. দেবরাজের অহঙ্কারের ফল
০৩. মৌন ব্রতভঙ্গের পাপমোচন
০৪. পরঞ্জয়ের কাহিনী

বিষ্ণু পুরাণ - পৃথ্বীরাজ সেন

০৫. রাজা যুবনাশ্বের গর্ভে মান্ধাতার জন্ম
০৬. সৌভরি মুনির উপাখ্যান
০৭. প্রতারক ইন্দ্র
০৮. কল্মষপাদের কাহিনি
০৯. নিমি হলেন বিদেহ
১০. পুরুরবার কাহিনি

আরও পড়ুনঃ

বেতাল ভৈরবের গণাধ্যক্ষতা – কালিকা পুরাণ

নারদের উপদেশে চন্দ্রশেখরের আত্ম-সাক্ষাৎকার – কালিকা পুরাণ

ঋষি-দর্শন – কালিকা পুরাণ

চন্দ্রশেখরের বিবাহ – কালিকা পুরাণ

ভৃঙ্গী ও মহাকালের শাপবিবরণ – কালিকা পুরাণ

বিষ্ণুপুরাণ

মন্তব্য করুন