ভাগবত পুরাণ – পৃথ্বীরাজ সেন

ভাগবত পুরাণ  হল একটি হিন্দু মহাপুরাণ। এটি একটি ভক্তিবাদী ধর্মগ্রন্থ। বিষ্ণুর পূর্ণ অবতার তথা “স্বয়ং ভগবান” কৃষ্ণের প্রতি গভীর ব্যক্তিগত ভক্তিই এই পুরাণের প্রধান আলোচ্য বিষয়।

যদিও মহাদেবকেও অদ্বিতীয় স্বতন্ত্র পরমেশ্বর বলে এই পুরাণেও উল্লেখ করা হয়েছে। হিন্দু পৌরাণিক সাহিত্যের অনেক কাহিনি তথা বিষ্ণুর চব্বিশ জন অবতারের কাহিনি ভাগ-বত পুরাণে লিপিবদ্ধ রয়েছে।

ভাগবত পুরাণ - পৃথ্বীরাজ সেন

ভাগ-বত পুরাণকে পবিত্রতম ও সর্বশ্রেষ্ঠ পুরাণ মনে করা হয়। কারণ, এটি বিষ্ণু ও তার বিভিন্ন অবতারের (প্রধানত কৃষ্ণের) প্রতি ভক্তির কথা প্রচার করে।

এই পুরাণে জাগতিক কর্মের বন্ধন থেকে মুক্তি, বিশুদ্ধ আধ্যাত্মিক জ্ঞান অর্জনের উপায় ও বিষ্ণুভক্তির মাহাত্ম্য বর্ণিত হয়েছে।

ভাগবত পুরাণ - পৃথ্বীরাজ সেন

ভাগ-বত পুরাণে বিষ্ণুকে (নারায়ণ) পরব্রহ্ম বলে উল্লেখ করে বলা হয়েছে, তিনিই অসংখ্য বিশ্ব সৃষ্টি করে প্রতিটির মধ্যে ঈশ্বর-রূপে প্রবেশ করেন।

ভাগবত পুরাণ – পৃথ্বীরাজ সেন

ভাগবত পুরাণ - পৃথ্বীরাজ সেন

১.ভাগ-বত পুরাণ – ০১ম স্কন্ধ
২.ভাগ-বত পুরাণ – ০২য় স্কন্ধ
৩.ভাগ-বত পুরাণ – ০৩য় স্কন্ধ
৪.ভাগ-বত পুরাণ – ০৪র্থ স্কন্ধভাগবত পুরাণ - পৃথ্বীরাজ সেন
৫.ভাগ-বত পুরাণ – ০৫ম স্কন্ধ

 

৬.ভাগ-বত পুরাণ – ০৬ষ্ঠ স্কন্ধ
৭.ভাগ-বত পুরাণ – ০৭ম স্কন্ধ
৮.ভাগ-বত পুরাণ – ০৮ম স্কন্ধ
৯.ভাগ-বত পুরাণ – ০৯ম স্কন্ধ

আরও পড়ুনঃ

রাজা যুবনাশ্বের গর্ভে মান্ধাতার জন্ম – বিষ্ণুপুরাণ – পৃথ্বী-রাজ সেন

পরঞ্জয়ের কাহিনী – বিষ্ণুপুরাণ – পৃথ্বী-রাজ সেন

মৌন ব্রতভঙ্গের পাপমোচন – বিষ্ণুপুরাণ – পৃথ্বী-রাজ সেন

দেবরাজের অহঙ্কারের ফল – বিষ্ণুপুরাণ – পৃথ্বী-রাজ সেন

ঋভু ও নিদাঘের কাহিনি – বিষ্ণুপুরাণ – পৃথ্বী-রাজ সেন

মন্তব্য করুন